• আজ- সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৬:৪৫ অপরাহ্ন
Logo

দল ক্ষমতায় আসলে; আদৌ আসবে কি-না!

আসিফ খন্দকার / ৩৩০ বার দেখা হয়েছে
আপডেট : রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

add 1
  • আসিফ খন্দকার

দল ক্ষমতায় আসলে কি কি করবে সেই স্বপ্নের বর্ণনা শুনছিলাম সদ্য বিশ্ববিদ্যালয় পেরুনো এক ছোটো ভাইয়ের কাছ থেকে। আমি সাধারণত অফিশিয়ালি রাজনৈতিক লেখা লিখিনা। কিন্তু তার কথা শুনতে শুনতে মনে হলো একটি বিষয়ে আলোচনা করা প্রয়োজন। সরকার পরিবর্তন কিভাবে হয় এর সাধারণ স্বাভাবিক উত্তর জনগণের ভোটে। যারা বিরোধী দল বা স্বাভাবিক অবস্থায় নেই তারা হয়তো বলবে আন্দোলন বা জ্বালাও পোড়াও করে অরাজকতা সৃষ্টি করে তার মাধ্যমে কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এর একটাও সঠিক না। একটি দেশে সরকার পরিবর্তন ঘটার পেছনে পাঁচটি উপাদান কাজ করে। নিম্নে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিলাম।

১) পুঁজিপতি: দেশের যেসকল ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পুঁজিপতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে, তারা কোন দল কে সমর্থন করছে এটি সরকার পরিবর্তন ঘটার প্রথম উপাদান।

২) আমলা: আমলা বলতে অনেকে শুধু প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের বুঝে। এখনকার জেনারেশনের বাচ্চাদের মধ্যে সুপরিচিত শব্দগুলোর অর্থ বা ব্যাখ্যা জানার যে অনিহা তা আমাকে বরাবরই পিড়া দেয়। যাইহোক, আমলা বলতে শুধু প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের বুঝাচ্ছি না।
এখানে আমলা হলেন:-

  • প্রশাসনিক কর্মকর্তা- উপসচিব থেকে শেষ পদ অব্দি।
  • পুলিশ কর্মকর্তা- এসপি থেকে শেষ পদ অব্দি।
  • সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা- মেজর থেকে শেষ পদ অব্দি।
  • বিচারক যারা রয়েছেন।
  • বিশেষায়িত কর্মকর্তাবৃন্দ- এখানে বিশেষ খাত পরিচালনা করতে সরকার ওই খাতে পারদর্শী কাওকে নিয়োগ দেন।যেমন একজন চিকিৎসক হলেন সাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। এখানে উনি চিকিৎসক হয়েও প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করছেন বিধায় উনিও আমলা হিসেবে গণ্য হবেন।সরকার পরিবর্তনে উপরিউক্ত এই পদধারী ব্যক্তিবর্গের বিশেষ ভূমিকা থাকে।

৩) বৈদেশিক চাপ: বর্তমান গ্লোবালাইজেশনের সময় কোনো দেশই একা চলে না বা চলতে পারে না।আন্তর্জাতিক আইন, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক রক্ষা করতে সব দেশই দায়বদ্ধ। তাই ব্যবসায়ীক লেনদেন হোক অথবা শত্রুপক্ষের সাথে সখ্যতা বিভিন্ন কারণে একটি দেশের সরকার পরিবর্তনে বহির্বিশ্বের চাপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

৪) শক্তিশালী বিরোধী দল: সরকার পরিবর্তনে এই উপাদান অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। কারণ উপরের তিনটি উপাদান মিলে সরকার পরিবর্তন করলেও তারা কিন্তু নিজেরা সরকার পরিচালনার দায়িত্ব নিবে না বা নিতে পারবেনা।সেক্ষেত্রে অন্য একটি রাজনৈতিক দলের হাতেই ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে বা আপনা আপনিই হস্তান্তরিত হবে।তাই একটি শক্তিশালী বিরোধী দল প্রয়োজন যে নিজে টিকে থাকতে ও ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সক্ষম।

৫) ভাসমান জনতা: ভাসমান জনতা হলো আমি- আপনি আমাদের মতো সাধারণ মানুষ সবাই।যদিও এদের ভোটেই মুলত সরকার গঠিত হয় তবে এই ভোট দেয়ার যে সিদ্ধান্ত ভাসমান জনতা নিবে সেই সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে উপরের চারটি উপাদান প্রভাব বিস্তার করে বলে এর অবস্থান তালিকায় সবার উপরে না হয়ে শেষে এসেছে।

পরিশেষে, দল ক্ষমতায় আসলে কি হবে এটা না ভেবে দল আদৌ ক্ষমতায় আসবে কি-না তা এই উপরের উপাদান গুলির সাথে মিলিয়ে দেখা উচিৎ। আপনি যে দেশের বাসিন্দা সেই দেশের পুঁজিপতি, আমলারা কোন সরকার কে চাচ্ছে, বৈদেশিক চাপ সরকারের পক্ষে শক্তিশালী বেশি নাকি বিপক্ষে, বিরোধী দল কি আসলেও শক্তিশালী নাকি দেড়যুগ ধরে সংখ্যাগরিষ্ঠদের মুল ধর্মীয় উৎসবের পরে সরকার পতন আন্দোলনের ডাক দিয়ে কারো সাড়া পাচ্ছেনা এরকম ইত্যাদি আপনি নিজেই ছক কেটে মিলিয়ে নিবেন। মেলানোর পরে যে ফলাফল আসবে তার উপর ভিত্তি করে দল ক্ষমতায় এলে কোন কোন অসাধ্য সাধন করা যাবে তা ভাবা যেতে পারে।।

লেখক: সম্পাদক
কালিহাতীর সাহিত্যাঙ্গন।
দক্ষিণ বেতডোবা, কালিহাতী, টাংগাইল।

add 1


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য লেখা সমূহ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার (সন্ধ্যা ৬:৪৫)
  • ২০ মে, ২০২৪
  • ১১ জিলকদ, ১৪৪৫
  • ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Sundarban IT