• আজ- বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৭:২০ অপরাহ্ন
Logo

এসো হে বৈশাখ এসো এসো…

আব্দুর রহমান / ১৫৯ বার দেখা হয়েছে
আপডেট : শুক্রবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৩

add 1

কালের গহ্বরে হারিয়ে গেলো আরো একটি বাংলা বছর। বিদায় ১৪২৯, স্বাগতম -১৪৩০। বাংলা নববর্ষ আমাদের অন্যতম প্রধান উৎসব হয়ে উঠেছে। বাংলা সনের সূচনা মোগল আমলে। আসলে এটি ফসলি সন। কৃষকরা বীজ বুনবেন, ধান কাটবেন, তারই সুবিধার জন্য এ বাংলা পঞ্জিকার উদ্ভব। বাঙালিরা যখন নববর্ষ পালন করে, পাহাড়িরা তখন করে বৈশাবী উৎসব। প্রায়ই একই সময় আরো পূর্বের দেশগুলোতে নববর্ষ পালন করতে দেখা যায়। এখন বাংলা নববর্ষ পালনে এসেছে নানা বৈচিত্র্য। একে কেন্দ্র করে বৈশাখী অর্থনীতি গড়ে উঠেছে। হাজার কোটি টাকার ব্যবসা হয়। গ্রামীণ কারিগরদের পণ্য বিক্রি হয়। তাঁতিরা উপকৃত হয়। আগের দিনে বৈশাখ এত রঙ্গিন আর আড়ম্বর পূর্ণ ছিল না। ব্যবসায়ীরা হালখাতা করতেন। ষাটের দশকে পাকিস্তানি শাসকেরা বাংলা আর বাঙালি সংস্কৃতির ওপর হামলা করতে থাকলে বাংলা নববর্ষে নতুন তাৎপর্য লাভ করে। ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান হয়ে ওঠে পহেলা বৈশাখের প্রধান অনুষঙ্গ। এ ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের মঙ্গল শোভা যাত্রা সব জরাজির্নতাকে পিছনে ফেলে সাম্প্রদিয়কতার বিষবাস্পের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে অগ্রসর বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ঘোষণা করে। এখন বাংলা নববর্ষে পান্তা ইলিশ খাওয়া, নববর্ষকে কেন্দ্র করে নতুন পোশাক কেনা, বন্ধু আত্মীয়স্বজন মিলে আড্ডা দেওয়া বেশ জনপ্রিয়। এবছর ইলিশেল দাম খুব চড়া, ঈদুল ফিতর ও নববর্ষ প্রায় একসময় হবার কারণে এবার পোশাকের বাজারে নববর্ষের পোশাকের প্রতি খুব একটা আগ্রহী নয় ক্রেতারা। এ ছাড়া মূল্যস্ফীতিয় চাপ সবাইকে আক্রান্ত করেছে। কৃষি সাল গন্নার জন্য বাংলা সনের সৃষ্টি হলেও এখন নানা অনুষ্ঠানিকতায় ভরে গেছে বৈশাখী উৎসব। স্বাধীন বাংলাদেশে বাংলা বর্ষকে কেন্দ্র করে দেশের অর্থনীতি চলে না। ইংরেজি বর্ষ অনুসারে এখন আমরা আমাদের বাৎসরিক বাজেট, মাসিক লেনদেন করে থাকি। তবে আশার কথা এবছর থেকে ভূমি উন্নয়ন কর বাংলা সন অনুসারে অনলাইনে পরিশোধ করা যাবে বলে ভূমি মন্ত্রণালয় প্রচরনা চালাচ্ছে। আমরা মনে করি, বাংলাদেশের আর্থিক হিসেবে বাংলা বর্ষ অনুসারে করা হোক। আন্তর্জাতিকতার দোহাই দিয়ে ইংরেজি বর্ষ ব্যবহার থেকে বিরত হই। নতুন বছরের সবার জীবনে হাঁসি আনন্দ ভরিয়ে দিক। দূর হোক সব দুঃখ, জ¦ালা, কুপমন্ডতা। কবির ভাষায় বলতে হয়,‘‘ নতুন আশা নতুন প্রাণ, নতুন সুর নতুন গান, নতুন জীবনে নতুন আলো, নতুন বছর কাটুক ভালো। তাই বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কণ্ঠে কণ্ঠে মিলিয়ে বলি, এসো হে বৈশাখ এসো হে বৈশাখ।

add 1


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য লেখা সমূহ

আজকের দিন-তারিখ

  • বৃহস্পতিবার (সন্ধ্যা ৭:২০)
  • ২০ জুন, ২০২৪
  • ১৩ জিলহজ, ১৪৪৫
  • ৬ আষাঢ়, ১৪৩১ (বর্ষাকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Sundarban IT