• আজ- শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০১:৪৩ অপরাহ্ন
Logo

আব্দুর রহমান / ১২০ বার দেখা হয়েছে
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪
Content writing
Content writing

add 1
কন্টেন্ট রাইটিং গাইডলাইন শিখে অনলাইনে ইনকাম করার এক সুবর্ণ সুযোগ! আমাদের ওয়েবসাইটে লেখালেখি অনেকেই ইনকাম করছেন। কন্টেন্ট রাইটিং শিখে অনলাইনে আয় করা এটি স্মার্ট উপায় বলে আমি মনে করি। কন্টেন্ট রাইটিং শিখে কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায় এবং কন্টেন্ট রাইটিং সম্পর্কের সকল খুঁটিনাটি প্রশ্নের উত্তর জানতে আমাদের পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।
কন্টেন্ট কি?
কন্টেন্ট হল কোন একটি বিষয় বা আইডিয়াকে বোধগম্য করার জন্য যে কোন মাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য, বিবরণ, বিশ্লেষণ, মতামত বা নির্দেশনা। কন্টেন্ট হতে পারে লিখিত, ভিডিও, অডিও, চিত্র, গ্রাফিক্স, অ্যানিমেশন বা অন্য কোনো রূপে।
কন্টেন্ট এর উদ্দেশ্য কি?
কন্টেন্ট এর উদ্দেশ্য হল দর্শকদের আকর্ষণ করা, তাদের কিছু শিখতে সাহায্য করা, তাদের সমস্যা সমাধান করা, তাদের কোন কিছু কিনতে উৎসাহিত করা বা তাদের সাথে সম্পর্ক তৈরি করা।
কন্টেন্ট কত প্রকার বা ডিজিটাল কন্টেন্ট কত প্রকার?
কন্টেন্ট বলতে আসলে ডিজিটাল মাধ্যমে প্রকাশিত যেকোনো তথ্য, ছবি, শব্দ কিংবা উভয়ই বুঝায়। অর্থাৎ আপনি এখন যে লেখা বা তথ্য পড়ছেন এটাও একটি কন্টেন্ট বা ডিজিটাল কন্টেন্ট হতে পারে যদি তা অপেক্ষাকৃত আকর্ষণীয় ও গঠনমূলক হয়। কন্টেন্ট বা ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রধানত চার প্রকার :
১) টেক্সট কন্টেন্ট
২) অডিও কন্টেন্ট
৩) ভিডিও কন্টেন্ট
৪) ইমেজ কন্টেন্ট
কন্টেন্ট রাইটিং কি?
কন্টেন্ট রাইটিং হল কোন একটি বিষয় বা উদ্দেশ্যের জন্য কন্টেন্ট তৈরি করার ক্রিয়াকলাপ। সহজ ভাষায় বললে, “কন্টেন্ট রাইটিং” বলতে মূলত ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর জন্য কাঙ্খিত মানসম্পন্ন লেখালেখি করার প্রক্রিয়াকে বোঝায়। অর্থাৎ বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য কন্টেন্টকে সুন্দর উপস্থাপনে রাইটিং করতে হতে পারে। আর সে গুণ বা বৈশিষ্টই হল কন্টেন্ট রাইটিং। কন্টেন্ট বলতে সাধারণত তথ্য, অডিও, ভিডিও এবং ইমেজ কে বোঝায়। কিন্তু “কন্টেন্ট রাইটিং” সম্পর্কে বলতে শুধু তথ্য বা ব্লগপোস্ট বুঝায়। কেননা অডিও, ভিডিও এবং ইমেজ তো আর রাইটিং করা যায় না।
মনে করুন ক্লাইন্ট আপনাকে “বিকাশ অ্যাপে ফ্রি লটারী খেলে টাকা ইনকাম করার উপায়“ সম্পর্কে কন্টেন্ট লিখতে বলল। তারপর আপনাকে অনলাইনে সেই বিষয়ে রিসার্চ করে কন্টেন্ট লিখে দিতে হবে। আপনার ক্লায়েন্ট যদি আপনার কন্টেন্ট পছন্দ করে তবে আপনাকে পে করবে। সে কারণে কীভাবে এসইও ফেন্ডলী কন্টেন্ট রাইটিং করতে হয় ও কন্টেন্ট রাইটারদের জন্য কিছু টিপস জানতে আমাদের সাথেই থাকুন।
কন্টেন্ট রাইটিং কত প্রকার?
কন্টেন্ট রাইটিং বিভিন্ন প্রকার হতে পারে এবং তা বিভিন্ন উদ্দেশ্যে এবং লক্ষ্যের কারণে আলাদা আলাদা হতে পারে। কন্টেন্ট রাইটিং এর বিভিন্ন প্রকার এর মধ্যে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য হলো:
১) ব্লগ রাইটিং
২) কপি রাইটিং
৩) সোশাল মিডিয়া পোস্ট রাইটিং
৪) নিউজ রাইটিং
৫) গোস্ট রাইটিং
৬) ক্রিয়েটিভ রাইটিং
৭) টেকনিক্যাল রাইটিং
৮) এড এন্ড প্রোমো রাইটিং
৯) লং ফরম কন্টেন্ট রাইটিং
১০) প্রোডাক্ট রিভিউ রাইটিং
১১) ই-মেইল রাইটিং
১২) ই-বুক রাইটিং
১৩) স্ক্রিপ্ট রাইটিং ইত্যাদি
প্রত্যেকটি কন্টেন্ট রাইটিং এর প্রক্রিয়া একটি আর একটির থেকে আলাদা তাই কন্টেন রাইটিং শিখতে গেলে প্রত্যেকটি কন্টেন্ট রাইটিং প্রক্রিয়া আলাদা আলাদা ভাবে শিখতে হবে।
কন্টেন্ট রাইটিং টিপস :
কন্টেন্ট রাইটিং হলো একটি প্রক্রিয়া যেখানে আপনি আপনার লক্ষ্য দর্শকদের জন্য মানসম্পন্ন, আকর্ষণীয় এবং কার্যকর বিষয়বস্তু তৈরি করেন। কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্র্যান্ড, পণ্য বা সেবা সম্পর্কে লোকদের সচেতন করতে পারেন, আপনার ক্রেডিবিলিটি বাড়াতে পারেন, আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বাড়াতে পারেন এবং আপনার ব্যবসায়ের উন্নয়নে সহায়তা করতে পারেন। কন্টেন্ট রাইটিং এর জন্য আপনাকে কিছু টিপস অনুসরণ করতে হবে, যার মাধ্যমে আপনি একজন ভালো কন্টেন্ট রাইটার হতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি টিপস মেনে কন্টেন্ট রাইটিং করা প্রয়োজন। যেমন :
ক) আপনার লেখার উদ্দেশ্য, দর্শক এবং টোন নির্ধারণ করুন।
খ) আপনার লেখার বিষয় সম্পর্কে ভালো করে গবেষণা করুন এবং বিশ্বস্ত এবং আপডেট তথ্য মধ্যে
লিখুন।
গ) আপনার লেখার জন্য একটি আকর্ষণীয় এবং স্পষ্ট শিরোনাম বা টাইটেল লিখুন।
ঘ) আপনার লেখাকে ছোট ছোট অনুচ্ছেদ, বুলেট পয়েন্ট, সাবহেডিং, ছবি, চার্ট বা টেবিল ইত্যাদি দিয়ে ভাগ করুন যাতে তা পড়ার জন্য সহজ হয়।
ঙ) আপনার লেখার ভাষা সহজ, সংক্ষিপ্ত এবং সম্প্রসারণমূলক হোক। অপ্রয়োজনীয় শব্দ, ভুল ব্যাকরণ এড়িয়ে চলুন।
চ) আপনার লেখার শেষে একটি সংক্ষেপ এবং ক্রিয়ামূলক উদ্দেশ্য বা কল টু অ্যাকশন যোগ করুন।
ছ) আপনার লেখাকে প্ল্যাগিয়ারিজম, বানান বা বাক্যগঠনের ভুল থেকে মুক্ত রাখার জন্য পরিক্ষা করুন এবং ভুল হলে সেটা ঠিক করুন।
জ) আপনার লেখাকে আপনার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করার আগে এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন এর জন্য এই কন্টেন্ট রাইটিং টিপস গুলো ফলো করে আপনি আপনার ওয়েবসাইট সোশ্যাল মিডিয়া অথবা যে কোন ব্লগের জন্য কন্টেন্ট রাইটিং করতে পারবেন। এছাড়াও ক্লায়েন্টদের জন্য কন্টেন্ট রাইটিং করে দিতে পারবেন।
কন্টেন্ট রাইটিং কেন প্রয়োজন :
কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে একজন রাইটার তার লক্ষ্য দর্শকদের কাছে তার বার্তা, তথ্য, বা মতামত পৌঁছাতে পারে। কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে একজন রাইটার নিজের ক্ষমতা, জ্ঞান, অভিজ্ঞতা, এবং সৃজনশীলতা প্রকাশ করতে পারে। কন্টেন্ট রাইটিং এর আরেকটি প্রয়োজন হলো এটি অনলাইন থেকে ইনকাম করার পদ্ধতি যার মাধ্যমে একজন রাইটার নিজের পছন্দের কাজ করে অনেক টাকা আয় করতে পারে। কন্টেন্ট রাইটিং এর বাজার বিশ্বব্যাপী বিশাল এবং এটি বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হয়। যেমন, ওয়েবসাইট, ব্লগ, সোশ্যাল মিডিয়া, ই-কমার্স, বিজ্ঞাপন, ই-বুক, ভিডিও, অডিও, ইত্যাদি। কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে একজন রাইটার তার ক্লায়েন্টের ব্র্যান্ড বা পণ্যের প্রচার, বিক্রয়, এবং সম্পর্ক তৈরি করতে অনন্য সহায়ক হতে পারে।
আমরা এই কন্টেন্ট তুলে ধরার চেষ্টা করেছি কন্টেন্ট কি, কন্টেন্ট রাইটিং কি কত প্রকার ও কি কি? এছাড়াও কন্টেন্ট রাইটিং টিপস ও কন্টেন্ট রাইটিং কেন প্রয়োজন সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এছাড়াও কন্টেন্ট রাইটিং শেখার উপায় সম্পর্কে আমাদের ব্লগে আলোচনা করা আছে এবং সেখান থেকে পিডিএফ ডাউনলোড করে আপনি কন্টেন রাইটিং শিখতে পারবেন। আশা করি আমাদের এই লেখা পড়ে আপনাদের উপকারে আসবে।
add 1


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য লেখা সমূহ
Content writing

আজকের দিন-তারিখ

  • শুক্রবার (দুপুর ১:৪৩)
  • ২৪ মে, ২০২৪
  • ১৫ জিলকদ, ১৪৪৫
  • ১০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ (গ্রীষ্মকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Sundarban IT