• আজ- বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৩০ অপরাহ্ন
Logo

৫ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলায় গণমাধ্যম কর্মীদের নিন্দা

সাহিত্যপাতা ডেস্ক / ১১৬ বার দেখা হয়েছে
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৩

add 1

সংবাদ প্রকাশের জেরে সাতক্ষীরা কর্মরত ৫ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যা মামলা হয়েছে। আদালত মামলাটি পিবিআইকে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে।মামলার আসামিরা হলেন, দৈনিক ভোরের পাতা নিজস্ব প্রতিনিধি ও ঢাকা মেইলের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি গাজী ফারহাদ, ঢাকা পোস্টের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি সোহাগ হোসেন, সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক পত্রদূতের নিজস্ব প্রতিবেদক হোসেন আলী, জাতীয় দৈনিক মুক্ত খবরের প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান সোহাগ ও সাতক্ষীরার স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক কালের চিত্রের পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি শাহীন বিশ্বাস। মামলার বাদী সাতক্ষীরা তালা উপজেলার হাজরাকাঠী গ্রামের মৃত. জব্বার সরদারের ছেলে মো. জহর আলী সরদার।সাতক্ষীরা বিজ্ঞ আমলী আদালত -৩ এর সুত্রে জানা যায়, গত ২ এপ্রিল শপিং ভ্যালী ফুড প্রোডাক্টস কোম্পানির ম্যানেজার জহর আলী সরদারের নিকটে দশ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন সাংবাদিকরা। এসময় সাংবাদিকরা বাদিকে মারপিট করে তার কাছে থাকা ৬০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এমন নানা ধরনের মিথ্যা অসঙ্গিতেপূর্ণ কারন দেখিয়ে মামলা দায়ের করেছে আদালতে। আদালত মামলাটি আগামী ২৩ মে তারিখের ভেতরে তদন্ত-পূর্বক প্রতিবেদন আদালতে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ঢাকা মেইলের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি গাজী ফারহাদ জানান, সাতক্ষীরা তালায় নাম পরিচয় গোপন রেখে ইমুতে এক প্রবাসী কোটি কোটি টাকার ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। সম্প্রতি আমরা কয়েকজন সংবাদকর্মী সরেজমিনে অনুসন্ধান পূর্বক এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করি। প্রতিবেদন প্রকাশের পর ঐ প্রবাসীর সেমাই কারখানায় অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে কারখানার ম্যানেজার আমাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে। মামলায় ঢাকা পোস্টের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি সোহাগ হোসেনকে ১ নাম্বর আসামি করা হয়েছে আমার জানা মতে সোহাগ হোসেন কখনো ওই ফ্যাক্টারীতে যায়নি কিংবা কোন সংবাদ প্রকাশ করিনি। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

ঢাকা পোস্টের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি সোহাগ হোসেন জানান, সাতক্ষীরা তালা সদরের আটারই গ্রামে শপিং ভ্যালী নামে একটি সেমাই কারখানা গড়ে উঠেছে। বিএসটিআই এর ভূয়া নিবন্ধন ব্যবহারের দায়ে ২৮ মার্চ র‍্যাব-৬ অভিযান পরিচালনা করেন। আমি এতটুকু জানি। এর বাইরে আমার কিছু জানা নেই। তাছাড়া এই সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আমি কোন সংবাদ প্রকাশও করিনি। ওই ফ্যাক্টরীর কারও সাথে কখনো মোবাইল ফোনে কিংবা সামনাসামনি কথা হয়নি। যে বিষয়টি নিয়ে মামলা হয়েছে আমি কখনো ওই ঘটনাস্থলে যায়নি। হটাৎ জানতে পারলাম আমাকে ১ নাম্বর আসামি করে পাঁচজনের নামে মামলা হয়েছে। আমি পেশাগত দায়িত্ব পালন ছাড়া কোথায় যেয়ে কখনো চাঁদা দাবি করেছি কেউ বলতে পারবেনা। আমাকে হয়রানী করার জন্য মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আমি এই মিথ্যা মামলার তীব্র নিন্দা জানাই। একই সাথে মিথ্যা মামলা দিয়ে সাংবাদিকদের হয়রানী করার জন্য মামলার বাদী ও স্বাক্ষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি।

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের বারবার নির্বাচিত সাবেক সভাপতি ও দৈনিক কালের চিত্রের সম্পাদক আবু আহমেদ বলেন, সাংবাদিকরা সমজের দর্পণ। সমাজের নানা অসঙ্গিত নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করছে এটাই স্বাভাবিক। সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা হয়রানি মূলক এই মামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। জেলার সকল সাংবাদিক সংগঠনের পক্ষ থেকে মানববন্ধন করা হবে। তাছাড়া এই বিষয়ে প্রশাসনের সাথে কথা বলে ঘটনার পিছনের ঘটনা তুলে ধরা হবে। বিষয়টি নিয়ে সাতক্ষীরার সকল সাংবাদিক সংগঠন ও গণমাধ্যম কর্মীরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। সাংবাদিকদের হয়রানি করার জন্য মিথ্যা মামলার বাদীসহ স্বাক্ষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছে।

add 1


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য লেখা সমূহ

আজকের দিন-তারিখ

  • বৃহস্পতিবার (দুপুর ১২:৩০)
  • ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ১৮ শাবান, ১৪৪৫
  • ১৬ ফাল্গুন, ১৪৩০ (বসন্তকাল)
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Sundarban IT